বোল্টের থেকে এক সেকেন্ডেরও কম দূরে বাংলাদেশের মেজবাহ

১০০ মিটার দৌড়ে জ্যামাইকান স্প্রিন্টার উসাইন বোল্টের থেকে এক সেকেন্ডের চেয়েও কম দূরে রয়েছেন বাংলাদেশের মেজবাহ আহমেদ।
ঢাকার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ১৩তম সামার অ্যাথলেটিক্সের শেষ দিনে শনিবার ১০০ মিটার দৌড়ে টানা ষষ্ঠবারের মতো সোনা জিতেছেন মেজবাহ। ১০ দশমিক ৮০ সেকেন্ড সময় নিয়ে তিনি এ সোনা জিতেছেন।

 

 

এদিকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের আগে শুক্রবার মোনাকোতে অনুষ্ঠিত ডায়মন্ড লিগের মিটে ১০০ মিটার দৌড়ে নিজের শেষ দৌড়ে ৯ দশমিক ৯৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে প্রথম হয়েছেন বোল্ট।

 

 

৯ দশমিক ৯৮ সেকেন্ড সময় নিয়ে আমেরিকার আইসিয়া ইয়ং দ্বিতীয় এবং ১০ দশমিক ০২ সেকেন্ড নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার আকানি সিম্বিনে তৃতীয় স্থান অধিকার করেছেন।

 

 

এ হিসেবে, বাংলাদেশের দ্রুততম মানব মেজবাহ টাইমিংয়ে বিশ্বের দ্রুততম মানব বোল্টের থেকে পিছিয়ে আছেন দশমিক ৮৫ সেকেন্ড। যা ১ সেকেন্ডেরও কম। তবে বোল্টের সঙ্গে মেজবাহর পার্থক্যটা কিন্তু কম নয়।

 

 

১০০ মিটারের দৌড় ১০ সেকেন্ডের নিচে নেমেছে ১৯৬৮ সালে। আর এখনো বাংলাদেশ পড়ে আছে ১০ সেকেন্ডের কাছাকাছি। মেজবাহ শনিবার যা করলেন, তা বিশ্বরেকর্ড ছিল ১৮৯১ সালের।

 

 

আসছে মাসে লন্ডনে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ১০০ মিটার ও ৪X১০০ মিটার রিলেতে দৌড়বেন বোল্ট। ডায়মন্ড লিগের ১০০ মিটারে বছরের সেরা টাইমিংয়ে পাওয়া জয় নিশ্চিতভাবেই তাকে নিজের শেষ আসরে আরো ভালো করার অনুপ্রেরণা জোগাবে।

 

 

দুই বছর পরপর হওয়া বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে এখন পর্যন্ত ১১টি সোনা জিতেছেন বোল্ট। ২০১১ সালে ১০০ মিটার দৌড়ে ডিসকোয়ালিফাইড হওয়া ছাড়া ২০০৯ থেকে এখন পর্যন্ত বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের সব ১০০ মিটার, ২০০ মিটার ও ৪X১০০ মিটারে সোনা জিতেছেন তিনি।   আরটিভি অনলাইন