নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থীর উপর বিজিত প্রার্থীর আক্রমণ-জখম ২

আজ দুপুর ৩টার দিকে নরসিংদীর মাধবদী বাসস্ট্যান্ডে মিতালী হোটেলে ইউপি নির্বাচনে জাল ভোটে বাধা দেয়ার জের ধরে দুই ব্যবসায়ীকে প্রকাশ্যে দোকানে ঢুকে কুপিয়ে জখম করেছে মাধবদী পৌর মেয়রের ভাগ্নে আরিফ।

মুমূর্ষু অবস্থায় মিতালী হোটেলের মালিক ও তার ছেলেকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়।আহতরা হলেন- পরাজিত ইউপি সদস্য প্রার্থী নাজমা আক্তারের ছেলে জাহিদ হাসান, তারা বাবা আলী আজগর ও চাচা শফিকুল ইসলাম।

Loading...

গত ৭ই মে মাধবদী নূরালাপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য হিসেবে নির্বাচন করেন সেলিনা। প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে নির্বাচন করেন মিতালী হোটেলের মালিকের সহধর্মিনী নাজমা আক্তার।

নির্বাচন চলাকালীন সময়ে প্রার্থী সেলিনার পক্ষে তার ছেলে শামীম জাল ভোট প্রদান করছিলেন। এতে বাধা দেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নাজমা আক্তারের ছেলে জাহিদ হাসান।ওই সময় উভয় পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসার আশ্বাস দিয়ে উভয় পক্ষকে নিভৃত করেন।দ্বন্দ্বের জের ধরে আজ মঙ্গলবার দুপুর ৩টার দিকে আরিফ, শাশীম ও আমানুল্লার নেতৃত্বে ৬/৭ জন লোক মাধবদী বাসস্ট্যান্ডে মিতালী হোটেলে গিয়ে দোকানের মালিক ও নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী নাজমা আক্তারের

স্বামী আলী আজগর এবং তার ছেলে জাহিদ হাসানের উপর হামলা চালায়। এসময় তারা জাহিদকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন অংশে কুপাতে থাকে।পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে মাধবদী প্রাইম জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি হলে দ্রুত তাদের ঢাকায় প্রেরণ করা হয়।

Loading...