লাগামছাড়া বোলিং তার অভিধানেই নেই

ডান হাতি ফাষ্ট বোলার। আক্রমনাত্মক বোলিংই যার নেশা। বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব ১৯ দলের হয়ে নিউজিল্যান্ডে খেলা এই পেসারের গতি ১৪০ কি:মি। তবে বাংলাদেশের মাথাব্যথার কারন লাগামছাড়া বোলিং, সেটা যেন তার অভিধানেই নেই।

যুব বিশ্বকাপে বাংলাদেশের হয়ে খেলা এই তরুন পাঁচ ম্যাচে নিয়েছেন ৯ উইকেট। ব্যাটিং পাওয়ার প্লে এবং ডেথ ওভারেও তার বোলিং বেশ কার্যকর। ইকোনোমি রেট মাত্র ৪।

একই সাথে এই তরুন ফাস্ট বোলারের বোলিং গড়ও যে কারো ঈর্ষা জাগাবে। এবারের যুব বিশ্বকাপে বোলিং গড়ে সেরা পাঁচ বোলারদের একজন হাসান মাহমুদ (১৬.২২)। বিশ্বকাপে হাসান মাহমুদ নিজের সেরা পারফর্মেন্স দিয়েছেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।

পঞ্চম স্থান নির্ধারণী ম্যাচে উড়তে থাকা ইংলিশ টপ অর্ডারে ধ্বস নামান তিনি। মাত্র ২৯ রান খরচায় ৩ উইকেট শিকার করেছেন তিনি। বিশ্ব মঞ্চে নিজেকে মেলে ধরতে পারা হাসান মাহমুদের লক্ষ্য সত্যিকারের ফাস্ট বোলারে পরিনত হওয়া।

বাংলাদেশে পেস বোলারের দুর্দিনই বলা যায়। রুবেল হোসেন অনেক অভিজ্ঞ। কিন্তু তার খেলায় নেই কোন অভিজ্ঞতার ছাপ। বেধরক মার খেতেই যেন পছন্দ করেন তিনি। গুরুত্বপূর্ন মুহুর্তে প্রতিপক্ষকে সাহায্য করাই যেন তার কাজ। মাশরাফিও আছেন ক্যারিয়ারের শেষ লগ্নে। মুস্তাফিজুর রহমানেরও আগের সেই ধার এখন নেই। এমন পরিস্থিতিতে এই বোলারকে সঠিক যত্ন করতে পারলে বাংলাদেশ আরো একজন সেরা পেসার পেতেই পারে।