কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে! অতঃপর…

ধামরাইয়ে উপজেলার সুয়াপুর ইউনিয়নের রৌহা গ্রামের এক কলেজছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ এবং মুঠোফোনে ধারণকৃত ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে একই গ্রামের বখাটে লিটনসহ (২১) আরও ৫ জনকে আসামি করে বুধবার রাতে ধামরাই থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

লিটন সুয়াপুর এলাকার সাগর আলীর ছেলে। বর্তমানে ধর্ষণের শিকার ওই স্কুলছাত্রী হাসপাতালের ওসিসিতে চিকিৎসাধীন।

Loading...

ধর্ষিতার মা বলেন, আমার মেয়ে ধামরাই সরকারি কলেজের ছাত্রী। কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তা থেকে তুলে নির্জনস্থানে নিয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে লম্পট লিটন। এ সময় গলায় ছুরি চেপে ধরে ধর্ষণের সেই দৃশ্য মুঠোফোনেও ধারণ করে। ধর্ষণের ভিডিও চিত্র এলাকার নারী-পুরুষের মোবাইলে ছড়িয়ে পড়েছে। বিষয়টি জানার পর সোয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান সোহাবকে জানানো হয়। এরপর স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মীমাংসা করার জন্য গত রাতেও বৈঠকে বসার কথা ছিল। তবে এর আগে মেয়েকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ভজয় রায় বলেন, আসামিদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ, ধর্ষণে সহায়তা, পর্নগ্রাফি ধারণে বাধ্য করা, সামাজিক মর্যাদাহানির ভয় দেখিয়ে টাকা দাবি, ইন্টারনেট ও মোবাইলে তা ছড়িয়ে দেয়া এবং এসব অপরাধে সহায়তা করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

Loading...