দুই স্কুলছাত্র মিলে ‘এক কলেজছাত্র’কে খুন, ৬ দিন পর লাশ উদ্ধার!

দুই স্কুলছাত্র মিলে- আমাদের দেশে বর্তমানে খুন খারাপি দিন দিন বেড়েই চলেছে! সামান্য ঘটনাকে কেন্দ্র করে একে অপরের সাথে মারামারি বাঁধিয়ে পরবর্তীতে এই মারামারি এমন পর্যায়ে যায় যে একজন অন্যকে খুন করতেও দ্বিধা করেনা!বাগেরহাটের চিতলমারীতে দুই স্কুলছাত্রের হাতে খুন হয়েছে এক কলেজছাত্র।

সবুজ বিশ্বাস নামের এই কলেজছাত্রের মহদেহ ৬ দিন পর রোববার দুপুরে থানার পাশের ডোবা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত দুই স্কুলছাত্রকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হলো, চিতলমারী এসএম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্র ও উপজেলার আড়ুয়াবর্ণি চরপাড়া গ্রামের আ. সালাম খানের ছেলে সাব্বির ওরফে সিগ্গির খান এবং একই স্কুলের ১০ম শ্রেণির ছাত্র হাসমত খানের ছেলে লিমন খান।পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তারা সবুজকে হত্যা করেছে বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে।

Loading...

নিহত সবুজ চিতলমারী শেরে বাংলা ডিগ্রি কলেজের কারিগরি ২য় বর্ষের ছাত্র ও চিতলমারী উপজেলার কাটাখালী গ্রামের পরিতোষ বিশ্বাসের ছেলে।চিতলমারী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অনুকুল বিশ্বাস জানান, কলেজছাত্র সবুজ বিশ্বাস ১৩ আগস্ট নিখোঁজ হয়।

পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার রাতে নিহত কলেজছাত্রের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলসহ ঘাকত সাব্বির ও রিমন নামের দুই স্কুলছাত্রকে গোপালগঞ্জ থেকে আটক করে পুলিশ।আটকদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী রোববার দুপুরে চিতলমারী থানার পাশে কচুরিপনার মধ্যে থেকে সবুজের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। কলেজছাত্রের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ঘাতক দুই স্কুলছাত্রের নামে হত্যা মামলার দায়ের করা হয়েছে।

Loading...