ঘণ্টায় ২২৫ কিলোমিটার ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ফ্লোরেন্স, ঘরছাড়া ১৭ লাখ মানুষ

আজ বৃহস্পতিবার উত্তর ক্যারোলাইনার উইলমিংটনের কাছে হারিকেনটি আঘাত হানতে পারে, যে কারণে এরইমধ্যে ভার্জিনিয়া, মেরিল্যান্ড, ওয়াশিংটন ডিসি, উত্তর এবং দক্ষিণ ক্যারোলাইনায় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। ইতিমধ্যই পার্শ্ববর্তী কয়েকটি অঞ্চল থেকে ১৭ লাখ মানুষকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

হারিকেন ফ্লোরেন্স আরও শক্তিশালী হয়ে ঘণ্টায় ২২৫ কিলোমিটার গতিতে আঘাত হানতে পারে বলে জানিয়েছে মার্কিন আবহাওয়াবিদরা। এতে আগামী ৪৮ ঘণ্টায় প্রাণনাশী প্লাবনের আশঙ্কা করছেন তারা।

Loading...

উত্তর ক্যারোলিনার গভর্নর রয় কুপার বলেন, ‘এই ঝড়টি দৈত্যাকার ধারণ করেছে। এটি বিশাল ও ভয়ঙ্কর।’ হারিকেন ফ্লোরেন্সের কারণে আগামী শুক্রবার মিসিসিপিতে পূর্বনির্ধারিত সমাবেশ বাতিল করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। একই সঙ্গে সবাইকে সতর্ক থাকতে বলেছেন তিনি।

একটি আবহাওয়া পূর্বাভাস কেন্দ্র জানায়, ক্যারোলিনায় এর আগে কখনোই এত শক্তিশালী ঝড় আঘাত আনেনি। এজন্যই সবাইকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

প্রথমে ক্যাটাগরি-৪ এর ঝড়ে রূপ নিয়েছিল হারিকেন ফ্লোরেন্স। যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া দপ্তরের সংজ্ঞা অনুযায়ী, ক্যাটাগরি-৪ ঝড় হল দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শক্তিশালী ঝড়। যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চলীয় উপকূলে এর আগে ৪ মাত্রার ঝড় আঘাত হানেনি। এবার এটি ক্যাটাগরি তিনে নামানো হয়েছে। বাতাসের গতিও কিছুটা কমে গেছে।

উত্তর ও দক্ষিণ ক্যারোলিনা ও ভার্জিনিয়া থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে ১৭ লাখ মানুষকে। চারটি লেনের রাস্তাকে একমুখী করা হয়েছে। বুধবার ক্যারোলিনাস, ভার্জিনিয়া, ম্যারিল্যান্ড, ওয়াশিংটন ডিসি ও জর্জিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি করা হয়।

Loading...