মাশরাফির সুপারিশে তামিমের সাথে ওপেনিংয়ে এবার খেলবেন যে ব্যাটসম্যান

কয়েক ঘন্টা বাদেই শুরু এশিয়া কাপ। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর শুরু হতে যাচ্ছে এশিয়ার ক্রিকেটের শ্রেষ্ঠত্বের এই আসর। আর ইতোমধ্যেই এর স্কোয়াড ঘোষণা করেছে বিসিবি। ওপেনিং নিয়ে নানা বিতর্ক থাকলেও এই তামিমের সাথে ওপেনার হিসেবে রাখা হয়েছে একমাত্র লিটনকেই।সাম্প্রতিক লিটন ওয়েস্ট ইন্ডিজে টি-টোয়েন্টি একটি ম্যাচে ওপেনিংয়ে মাত্র ৩২ বলে ৬১ রানের ম্যাচ উইনিং ইনিংস খেলে নজর কাড়ার পাশাপাশি আস্থাও কুড়িয়েছেন সকলের।

তাই তো এশিয়া কাপের জন্য ক্যাম্পে প্রস্তুতি ম্যাচ ও অনুশীলনে ঘাম ঝরাচ্ছেন লিটনও। আর লিটনকে যেন সেই অভয়ই দিচ্ছেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।আজ মিরপুরে অনুশীলনের ফাকে লিটনকে যেন এই কথাই বুঝাচ্ছিলেন ও নিজের সেরা উজার করে দিতে বলছেন মাশরাফি। যদিও কথাগুলো প্রতিকী কিন্তু মাশরাফির ও দলের লিটনের কাছে এখন চাওয়া এইটুকুই। সুযোগ কাজে লাগিয়ে নিজেকে তামিমের যোগ্য পার্টনার প্রমানের সাথে সাথে দলকে জয় এনে দেওয়াতে বড় অবদান রাখা।উল্লেখ্য, লিটন দাস টাইগারদের অন্যতম টেকনিক্যালি সলিড ব্যাটসম্যান।

Loading...

তাঁর ক্লাসিকাল শট দেখে আপনি চোখ সরাতে পারবেন না। তাঁর খেলা দেখে সেই পুরানো কথা বলতেই হবে-‘ফর্ম ইজ টেম্পোরারি ক্লাস ইজ পার্মানেন্ট’। ৭৯টি লিস্ট এ ম্যাচ খেলে ৪০.৫৮ গড়ে করেছেন ২৯৬৩ রান। সেঞ্চুরি করেছেন ৭ টি।সর্বোচ্চ অপরাজিত ১৪৩। লিস্ট এ ক্যারিয়ার দেখেই বোঝা যায় সে কতটা প্রতিভাধর ব্যাটসম্যান।কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের পুরোপুরি ব্যর্থ তিনি। ওয়ানডে ক্রিকেটে এখন অবধি দেখা পাননি কোনো ফিফটির, সর্বোচ্চ ৩৬ রান। ১২ ম্যাচ খেলে ১৫ গড়ে করেছেন মাত্র ১৬৫ রান।তবে এই ব্যর্থতার জন্য লিটন নিজে যতটুকু না দায়ী, তার চেয়ে বেশি দায়ী বিসিবি।

এক ম্যাচ খেলিয়ে অন্য ম্যাচ বসিয়ে রাখা এবং আজ এক পজিশনে তো কাল অন্য পজিশনে খেলানো। এভাবে কি কোনো খেলোয়াড়ের সেরাটা বের করা সম্ভব?৩ বছরের ক্যারিয়ারে খেলেছেন মাত্র ১২ ওয়ানডে। সেটাও আবার ভিন্ন ভিন্ন তিনটি পজিশনে। তবে এবার সবাই চাইবে লিটন তার ক্লাস ও নিজের সবটুকু উজার করে দিয়ে তার সেরাটা দিবেন। আর এশিয়া কাপে দলের হবে বড় অবদান রাখবেন।

Loading...