মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় রাজশাহী বিভাগে প্রথম স্থানে উর্মি

মেডিকেল কলেজে ভর্তির পরীক্ষায় মেধাতালিকায় রাজশাহী বিভাগে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন ফাহমিদা ইয়াসমিন উর্মি। তিনি রাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌরসভার মাদারপুর মহল্লার বদর আলী ও কিসমত আরা দম্পতির মেয়ে। বদর আলী একজন কৃষিজীবী, আর কিসমত আরা স্কুলশিক্ষক।

শুক্রবার মেডিকেল কলেজের এমবিবিএস প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা হয়। রবিবার ফলাফল প্রকাশ হয়।

Loading...

ফলাফল অনুযায়ী, রাজশাহীর মেধাবী মেয়ে উর্মি ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পাচ্ছেন। শুধু সুযোগই নয়, জাতীয় মেধাতালিকায় তিনি পঞ্চম স্থান অধিকার করেছেন। আর রাজশাহী বিভাগে তিনি অর্জন করেছেন প্রথম স্থান।

এ বছর উর্মি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েও (ঢাবি) স্নাতক প্রথম বর্ষে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। গত ২৮ অক্টোবর ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা হয়েছিল। ৩ অক্টোবর প্রকাশিত ফলাফলে তিনি ঢাবির ‘ক’ ইউনিটে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। তবে উর্মি মেডিকেল কলেজেই পড়াশোনা করতে চান বলে জানান।

উর্মি বলেন, বড় ডাক্তার হতে চাই। ডাক্তার হয়ে মানুষের সেবা করতে চাই। তবে মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাওয়াটাই বড় কথা নয়। এমবিবিএস পাস করাটাও একটা বড় চ্যালেঞ্জ। আমি পড়াশোনা শেষ করে নিজের স্বপ্ন পূরণ করতে চাই। সমাজে উজ্জ্বল করতে চাই বাবা-মায়ের মুখ। কারণ, আজ আমার এই অর্জনের পেছনে তাদের অবদান সবচেয়ে বেশি।

উর্মি গোদাগাড়ীর মহিষালবাড়ি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১৬ সালে মাধ্যমিক পাস করেন। আর ২০১৮ সালে তিনি উচ্চ মাধ্যমিক উত্তীর্ণ হন রাজশাহী সরকারি কলেজ থেকে। দুটি পরীক্ষাতেই তিনি অর্জন করেন গোল্ডেন জিপিএ-৫।

Loading...