কোচিং সেন্টারে স্ত্রীকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করলো স্বামী! অতঃপর…

পরিবারের কলহের জের ধরে প্রকাশ্যে দিবালোকে এক গৃহবধুকে কুপিয়ে হত্যা করেছে তার স্বামী।সোমবার দুপুরে শান্তা (১৯) নামে ওই গৃহবধুকে কোপানো হয়। পরে সন্ধ্যর দিকে এনামুলকে খুলনা থেকে আটক করে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল ১১টার দিকে পৌর শহরের কুমারখালী এলাকার টি এ ফারুক স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে একটি কোচিং সেন্টারে স্ত্রী শান্তা পড়ার জন্য যায়। সেখান থেকে এনামুল তাকে কথা বলার জন্য ডেকে বের করে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই স্বামী এনামুল তার ওপর হামলা করে এবং হাতে থাকা ছোড়া দিয়ে কোপাতে থাকে।

Loading...

ছোড়ার কোপে ঘটনাস্থলেই শান্তা মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে মংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি দেখে ডাক্তার তাকে দ্রুত খুলনা মেডিকেল হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। শান্তাকে খুলনা মেডিকেল হাসপাতালে রেখে স্বামী এনামুল পালিয়ে যায়। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় খুলনা থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। এদিকে শান্তার মৃত্যু হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, নিহত শান্তা পৌর শহরের ১নং ওয়ার্ডে টি এ ফাংক স্কুল অ্যান্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী। তিনিবটতলা এলাকার বাসিন্দা আকবর হোসেনের মেয়ে। এ ব্যাপারে হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Loading...