মাটি খুঁড়ে গিয়ে কোটিপতি দিনমজুর!

পেশায় দিনমজুর মোতিলালের বাবা-ঠাকুরদাও সেই স্বপ্নে ভর করেই আজীবন মাটি খুঁড়ে গিয়েছিলেন। তবে কারও ভাগ্যই খোলেনি। কিন্তু মাত্র মাস দেড়েকের চেষ্টাতেই স্বপ্ন সফল হয়েছে মোতিলালের।

মোতিলাল জানিয়েছেন, মাস দেড়েক আগে ধারদেনা করে শহরের কৃষ্ণ কল্যাণপুর এলাকায় একটি জমি কিনেছিলেন তিনি। এর পর ভাই রঘুবীরকে নিয়ে মাটি খোঁড়ার কাজে লেগে পড়েন।

Loading...

অবশেষে হিরের মুখ দেখতে পেয়েছেন। পান্না শহরে সেই ১৯৬১ সালে এর চেয়েও বড় হিরের খোঁজ মিলেছিল। সেই হিরের ওজন ছিল ৪৪.৫৫ ক্যারাট।

ভারতের মধ্যপ্রদেশের ছোট শহর পান্নাতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে হিরের খনি। শহরের মাটি খুঁড়লেই নাকি মেলে হিরে। এমনটাই বিশ্বাস করেন ওই এলাকার বাসিন্দারা। তাই অনেকেই হিরের স্বপ্নে বিভোর থাকেন।

তিন পুরুষ আগেই তার খোঁজ শুরু হয়েছিল। তবে এত দিন কারও ভাগ্যেই শিকে ছেঁড়েনি। মঙ্গলবার মাটি খুঁড়ে বার করেছেন একটি প্রমাণ সাইজের হিরে। ওজন ৪২.৫৯ ক্যারাট। যার বাজারদর অন্তত দেড় থেকে আড়াই কোটি টাকা।

Loading...