ফেলে রাখা ‘পাথর’ বিক্রি, ৭৫ কোটি টাকা আয়

অনেক সময় দেখা যায় আমরা কিছু পুরোনো জিনিস ফেলে রাখি অযত্নে অবহেলায়। আমরা ভাবি এটা কোন কাজে আসবেনা। কিন্তু পরবর্তীতে সেটাই হয়ে ওঠে অমূল্য সম্পদ।ঠিক তেমনি যুক্তরাষ্ট্রের রোড আইল্যান্ডের এক বাসিন্দা ১৯৭০ সালে একটি সিরামিক প্লেট কিনেছিলেন।

তিনি সাড়ে ছয় হাজার টাকায় ওই প্লেট কিনেছিলেন। এসব পিকাসোর নকশা করা প্লেট পাওয়া গেছে কারো গ্যাস ওভেনের পাশে, কখনোবা বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ আকৃতির মুক্তো মিলেছে মৎস্যজীবীর ঘরের কোণে।এদিকে, তার প্লেটটি গ্যাস ওভেনের পাশেই রাখা ছিল।

Loading...

পিকাসোর নকশা করা সেই প্লেটের দাম ধার্য করা হয় প্রায় ৭৫ কোটি টাকা।অন্যদিকে, আর দরজার পাশে রাখা ছিল একটা পাথর, যা বয়স প্রায় ৩০ বছর। এটিকে শখেই কিনেছিলেন এক ব্যক্তি। সে সময় তার দাম ছিল হাজার দুয়েক টাকা। পরবর্তীতে সেটির দাম নির্ধারণ হলো প্রায় ৭৫ কোটি টাকা। আসলে সেটি ছিল মহাকাশ থেকে খসে পড়া ধূমকেতু বা উল্কার টুকরো মেটিওরাইট। তাই ফেলে রাখা অমূল্য এই রত্নগুলো নিয়ে আর অবহেলা নয়।

Loading...