প্রিন্স খালেদ বিন তালালের মুক্তি

দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের সমালোচনা করায় আটক এক সৌদি প্রিন্স আটকাবস্থা থেকে মুক্তি পেয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।প্রিন্স খালেদ বিন তালালের স্বজনরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু ছবি শেয়ার করেছেন যেগুলোতে তাকে তার পরিবারের সঙ্গে দেখা গেছে, ছবিগুলো এই সপ্তাহান্তেই তোলা হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে, জানিয়েছে বিবিসি। প্রায় এক বছর আগে আটক হওয়া এই প্রিন্স সৌদি আরবের বর্তমান বাদশা সালমান বিন আব্দুলআজিজ ইবনে সৌদের ভাতিজা। দেশটির ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের সমালোচনা করায় গত বছর তাকে আটক করা হয়েছিল।

ওই অভিযানে যে অসংখ্য সৌদি প্রিন্স ও রাজনৈতিক কর্মকর্তা আটক হয়েছিলেন, তাদের মধ্যে প্রিন্স খালেদের ভাই প্রিন্স আলওয়ালিদ বিন তালালও ছিলেন। প্রিন্স আলওয়ালিদ এ বছরের শুরুতে মুক্তি পান। গত মাসে তুরস্কের সৌদি কনসুলেটের ভেতর রাজপরিবারের সমালোচক সাংবাদিক জামাল খাশুগজি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ প্রবল চাপে আছেন। এ সময়ই প্রিন্স খালেদকে মুক্তি দেওয়া হলো।

Loading...

সংকট মোকাবিলায় রাজপরিবারের ভেতরে সমর্থন বাড়ানোর চেষ্টায় এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে ধারণা পর্যবেক্ষকদের। “আপনাকে নিরাপদে রাখায় আল্লাহকে ধন্যবাদ,” টুইটারে খালেদ ও পরিবারের অন্য সদস্যদের ছবি দিয়ে বলেন সৌদি এ প্রিন্সের ভাতিজি প্রিন্সেস রিম বিনতে আলওয়ালিদ। অন্য আত্মীয়-স্বজনরা কয়েক বছর ধরে কোমায় থাকা পুত্রকে খালেদের চুমু ও জড়িয়ে ধরার ছবিও দিয়েছেন, জানিয়েছে বিবিসি।

খালেদকে কী কারণে আটক রাখা হয়েছিল, কেনইবা তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে, সে সম্বন্ধে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি সৌদি সরকার। তবে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল বলছে, সৌদি সরকারের দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের সমালোচনা করায় প্রায় ১১ মাস ধরে বন্দি ছিলেন প্রিন্স খালেদ। মোহাম্মদ বিন সালমান ক্রাউন প্রিন্স হওয়ার পর গত বছর সৌদি সরকার দুর্নীতির অভিযোগে ২০০রও বেশি প্রিন্স, মন্ত্রী ও ব্যবসায়ীকে পাঁচ তারকা হোটেল রিটজ-কার্লটনসহ রিয়াদের বিভিন্ন হোটেলে বন্দি করে রাখা হয়।ক্ষমতা সুসংহত করতে মোহাম্মদই সেসময় এ অভিযান চালিয়েছিলেন বলে ইঙ্গিত বিশ্লেষকদের। ওই দুর্নীতিবিরোধী অভিযান থেকে একশ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি অর্থ পুনরুদ্ধার সম্ভব হয়েছিল বলে চলতি বছরের জানুয়ারির শেষে সৌদি আরবের শীর্ষ কৌঁসুলির কার্যালয় জানিয়েছিল।

Loading...