ইমরান সরকার কট্টরপন্থিদের গুহায় পা দিয়েছে: জেমিমা

পাকিস্তানকে তোলপাড় করে দেয়া আসিয়া বিবি ইস্যুতে অবশেষে মুখ খুললেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সাবেক স্ত্রী জেমিতা গোল্ডস্মিথ। সরকার এ ইস্যুতে আন্দোলনরত তেহরিকে লাব্বাইক পাকিস্তানের (টিএনপি) সঙ্গে ৫ দফার ভিত্তিতে চুক্তি করেছে। সরকারের এমন চুক্তিবদ্ধ হওয়ায় ইমরান খানের সাবেক স্ত্রী হলেও বর্তমানে তার কড়া সমর্থক জেমিমা গোল্ডস্মিথ তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, আসিয়া বিবির মৃত্যৃ পরোয়ানায় স্বাক্ষর করার মাধ্যমে সরকার কট্টরপন্থিদের গুহায় প্রবেশ করেছে। জেমিমার সঙ্গে ইমরান খানের ছাড়াছাড়ি হয়ে গেলেও তিনি এখনও ইমরান খানের প্রতি অনুগত। তার বিভিন্ন কাজের প্রশংসা করেন। তাকে সমর্থন দেন। কঠিন সময়ে ইমরানের পক্ষ হয়ে কথা বলেন।

কিন্তু এবার তা পারলেন না। তিনি টুইটারে লিখেছেন, পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফ (পিটিআই) নেতৃত্বাধীন সরকার আসিয়া বিবির মৃত্যুদন্ডাদেশ নিয়ে কট্টরপন্থিদের দাবি মেনে নিয়ে তাদের গুহায় প্রবেশ করেছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

Loading...

উল্লেখ্য, ধর্ম অবমাননার দায়ে খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের নারী আসিয়া বিবিকে মৃত্যু দন্ড দিয়েছিল আদালত ২০১০ সালে । লাহোর হাই কোর্টের ওই রায়কে গত ৩০ শে অক্টোবর বাতিল করে পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্ট। আসিয়া বিবি’কে বেকসুর খালাস দেয়া হয়। আসিয়া বিবির বয়স এখন ৫১ বছর। তিনি ২০১০ সালের নভেম্বর থেকে মৃত্যুদন্ডের শাস্তি মাথায় নিয়ে জেলে অবস্থান করছিলেন।

সুপ্রিম কোর্ট তাকে বেকসুর খালাস দেয়ার পর আন্দোলনে ফেটে পড়ে পাকিস্তান। এতে নেতৃত্ব দেয় টিএলপি। পরিস্থিতি বিস্ফোরণোন্মুখ হয়ে পড়ায় প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বৈঠক করেন সেনাপ্রধানের সঙ্গে। তারপর তিনি জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন। কিন্তু তিনদিন ধরে সারাদেশে অবস্থান ধর্মঘট পালন করতে থাকে টিএলপি। অবশেষে সরকার টিএলপির সঙ্গে একটি চুক্তি করে। তাতে ৫টি দফা আছে। এ চুক্তির একদিন পরেই জেমিমা গোল্ডস্মিথ টুইট করে সরকারের ওই সমালোচনা করেন। এতে তিনি ইমরান খানের দেয়া জাতির উদ্দেশে ভাষণেরও সমালোচনা করেন।

Loading...