আওয়ামী লীগের সামনে জাতীয় ঐক্যফ্রণ্টের তিন শর্ত!

আগামী সংলাপে আওয়ামী লীগের সামনে তিনটি দাবি উপস্থাপন করবে ঐক্যফ্রন্ট। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের একটি দায়িত্বশীল সূত্র এই খবর নিশ্চিত করেছে। এক্ষেত্রে ওই তিন দাবি বা শর্ত মেনে নিলে ঐক্যফ্রন্ট তাদের ৭ দফার অন্যতম দাবি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের বিষয়ে ছাড় দেবে।শর্ত তিনটি হলো- সংসদ ভেঙে দিয়ে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে ভোট গ্রহণ, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট বা সংসদের বাইরের বিরোধী দলগুলো থেকে নির্বাচনকালীন সরকারের মন্ত্রিসভায় টেকনোক্র্যাট কোটায় স্বরাষ্ট্র বা জনপ্রশাসনের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয় দেয়া এবং বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিনে মুক্তি ও তাঁর ভোটে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সাজা স্থগিত করা।

বিএনপির একজন আইনজীবী নেতা জানান, আগামী সংলাপে ঐক্যফ্রন্ট তাদের দাবিগুলোর সাংবিধানিক ও আইনগত যৌক্তিকতা তুলে ধরবে। তবে নিশ্চিতভাবেই সিদ্ধান্তের ভার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর ছেড়ে দেয়া হবে। তারা মানা না মানার ওপর পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।সংবিধানের মধ্য থেকে নির্বাচনের অনেক উপায় আছে, যা নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু, অংশগ্রহণমূলক ও নিরপেক্ষ করতে এবং সব রাজনৈতিক দলের আস্থা বাড়াতে ভূমিকা রাখবে উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, সংবিধানের বাইরে গিয়ে কোনো পন্থা বের করা বা সংবিধান সংশোধন তাঁরা করবেন না।

Loading...

খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে বিএনপির আরেক নেতা বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসনের মুক্তির বিষয়টি আদালতের ব্যাপার। রাষ্ট্রপক্ষ যদি তাঁর জামিনের বিরোধিতা না করে বা আপিলে সাজা স্থগিতের বিরোধিতা না করে তাহলে ভোটের সময় খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব।উল্লেখ্য, গতকাল রাতে আইনজীবী শাহদীন মালিক, আসিফ নজরুলসহ অন্যান্য আইনজ্ঞদের সাথে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদের মতিঝিলের চেম্বারে একটি বৈঠক করে ঐক্যফ্রন্ট। ওই বৈঠকে এসব দাবির যৌক্তিকতা নিয়ে আলোচনা করা হয়। সুত্র: ২৪লাইভনিউজপেপার

Loading...