প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপ শেষে যা বললেন জিএম কাদের

সংবিধানের আলোকে নির্বাচনে ঐক্যমত এবং সকল দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত হলে ১৪ দলের সঙ্গে জোটবদ্ধ নির্বাচন করবে জাতীয় পার্টি। অন্যথায় এককভাবে নির্বাচন করা হবে বলে জানালেন পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের।সোমবার রাতে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সংলাপ শেষে বেড়িয়ে এসে একথা বলেন তিনি।

সংলাপে আসন বন্টনের বিষয়টি সূরাহা হয়েছে কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে জিএম কাদের বলেন, বিষয়টি নিয়ে কথা হয়েছে। পরবর্তীতে স্বল্প পরিসরে আলোচনার মাধ্যমে ঠিক করা হবে।এসময় নির্বাচনে বিএনপির মতো দল অংশ না নিলে ৩০০ আসনে এককভাবে নির্বাচনের কথাও বলেন কাদের।এর আগে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সংলাপে বসেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বে ৩৩ সদস্যের প্রতিনিধি দল।

Loading...

সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এ সংলাপ শুরু হয়।সংলাপ শুরুর পর সূচনা বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় বিগত দিনে দেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রায় ভূমিকা রাখায় জাতীয় পার্টিকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী। সেইসঙ্গে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আগামী দিনেও একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।এর আগে গত শনিবার জামালপুরে দলের জনসভায় এইচ এম এরশাদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী আমাদের সংলাপে ডেকেছেন, আমরা সংলাপে যাব। আমাদের দাওয়াত দিয়েছেন, আমরা দাওয়াতে যাব। আমরা কোনো তালিকা নিয়ে সংলাপে যাব না। এ সংলাপে আমার দাবি হবে একটাই, কত আসন দেবেন? যদি পর্যাপ্ত আসন দেয়, তবে আমরা মানব। আমার মনে হয়, তারা আমাদের দাবি মানবে।

সংলাপে এরশাদের নেতৃত্বে যারা ছিলেন-

জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ, কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমীন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, এমএ ছাত্তার, কাজী ফিরোজ রশীদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসন খান, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, সাহিদুর রহমান, শেখ মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, ফখরুল ইমাম, মজিবুল হক চুন্নু, সালমা ইসলাম, সুনীল শুভরায়, এসএম ফয়সল চিশতী, মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী।

মসিউর রহমান রাঙা, আজম খান, সোলায়মান আলম শেঠ, আতিকুর রহমান আতিক, মেজর (অব.) খালেদ আক্তার, সফিকুল ইসলাম সেন্টু, শামীম হায়দার পাটোয়ারী।জাতীয় পার্টির যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা, নুরুল ইসলাম ওমর, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের চেয়ারম্যান মাওলানা এমএ মান্নান, মহাসচিব এমএ মতিন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাহফুজুল হক, যুগ্ম মহাসচিব জালাল আহমেদ, জাতীয় ইসলামী মহাজোটের চেয়ারম্যান আবু নাসের ওয়াহেদ ফারুক, বিএনএর চেয়ারম্যান সেকেন্দার আলী মনি।

Loading...