তরুণ প্রজন্মের নায়িকা দীঘি। শিশুশিল্পী হিসেবে একসময় ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন তিনি। এরপর গত বছর ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমার মাধ্যমে নায়িকা হিসেবে অভিষেক ঘটে তার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের ওজন নিয়ে প্রায়ই বুলিংয়ের শিকার হতে হয় বলে জানিয়েছেন দীঘি। আগে বিষয়টিকে পাত্তা না দিলেও সম্প্রতি মুখ খুলেছেন তিনি।

সম্প্রতি নিজের ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাসে এই তারকা লেখেন, ‘আমার ওজন নিয়ে সবাই খুব চিন্তিত! আসলে তারা ভুলেই গেছেন আমি একজন অভিনয়শিল্পী, যার কাজ মূলত অভিনয় করা, জিম প্রশিক্ষক না।’

তার এই বক্তব্যকে অনেকেই ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। এসবে কান না দিয়ে নিজের কাজে মনোযোগ দিতে পরামর্শ দিয়েছেন অনেকে।

দীঘি তার ওই ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ‘অনেক দিন ধরেই শুনছিলাম, আমি ফিটনেস সচেতন না। তবে আমি সেটা করার জন্য আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। কিন্তু তারপরও কিছু মানুষ আছে, যারা কানের সামনে এসে এগুলো বলে খুব পৈশাচিক আনন্দ পায়। এই যে কটূ কথাগুলো বলে একজনকে ছোট করাটা-এই জিনিসটা আমার একদমই পছন্দ না।’

তিনি আরো বলেন, ‘একজন অভিনেত্রীকে সবার আগে তার কাজ দিয়ে মূল্যায়ন করা উচিত। যেহেতু আমি একজন অভিনেত্রী, তাই আমার প্রথম কাজটাই হচ্ছে অভিনয় করা। বাকি যা আছে আছে, সেটা পরে দেখবেন। যদি আমাকে আপনাদের যাচাই করতেই হয়, অভিনয় পারি কি না, সেটা দিয়ে করুন।’

শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় পুরস্কার পাওয়া এই তারকা অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘অনেকটা সময় চুপ থেকে মনে হলো বিষয়টা সবাই সহজভাবে নিচ্ছে না।

তাই ভাবলাম, স্ট্যাটাস দিয়ে দেখি কী হয়। কারণ, এই বিষয়টি সবারই বোঝা উচিত পৃথিবী এখন আগের থেকে অনেকটাই এগিয়ে গেছে। আমরা যদি এখনও আগের চিন্তা-ভাবনাতেই পরে থাকি যে, নায়িকা মানে স্লিম ফিগার, নায়িকা মানে জিরো ফিগার, তাছাড়া নায়িকা হবে না। এই জিনিসটা থেকে বের হওয়া উচিত।’

প্রসঙ্গত, ‘তুমি আছো তুমি নেই’ এবং ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়াভাই’ সিনেমার পর কিছুদিন আগে ‘শেষ চিঠি’ নামের একটি ওয়েব ফিল্মের মাধ্যমে তার অভিষেক ঘটেছে ওটিটি প্লাটফর্মে।

যেখানে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন নায়ক ইয়াশ রোহান। এতেও বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছেন দীঘি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.