বাংলাদেশের একসময়ের সবচেয়ে বেশি আলোচিত ও জনপ্রিয় জুটি ছিলো শাকিব খান আর অপু বিশ্বাস। ২০০৬ সালে এফ আই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ চলচ্চিত্রে প্রথম জুটি বাঁধেন শাকিব শাকিব-অপু।

তাদের অভিনীত প্রথম ছবিই তুমুল ব্যবসা করে। এই জুটি রাতারাতি সবার নজরে চলে আসে। গত এক দশকে অসংখ্য হিট-সুপারহিট ছবি উপহার দিয়েছেন শাকিব-অপু জুটি। এই সময়ে সবচেয়ে ব্যস্ত জুটিও ছিলেন তারা।

একসময় একসঙ্গে ছবি করে কাঁপাতেন ঢালিউডের সিনেমার দুনিয়া। এরপর লুকিয়ে বিয়ে করেছিলেন তাঁরা। একসময় নাটকীয় ভাবে ছেলে আব্রাম খান জয়কে নিয়ে হাজির হয়ে সকলকে চমকে দিয়েছিলেন।

এখন পথ আলাদা দুজনের। মাঝে তো মুখ দেখাদেখিও বন্ধ ছিল। কিন্তু এখন যে গুঞ্জন উঠেছে, তাতে বিশ্বাস করলে ফের মিল হওয়ার সম্ভাবনা আছে অপু আর শাকিবের। হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাতকারে এমন এক ইঙ্গিত পাওয়া গেছে স্বয়ং অপু বিশ্বাসের কথা থেকেই।

ওই সাক্ষাৎকারে বেশ হাসি হাসি মুখে অপু বিশ্বাস বলেছেন, ‘আমি লাল শাড়ি পরে শাকিবকে প্রপোজ করেছিলাম’! প্রাক্তন স্বামীকে নিয়ে হঠাৎ এমন সরব হওয়ায় গুঞ্জন আরো বেড়ে যায়।

তাহলে কি শাকিব আর অপু আবার মিলে যাচ্ছেন, এমন কথা উঠতেই পারে। সেইসঙ্গে অপু এবার কলকাতায় আসার সময় ছেলেকে বাবার কাছে মানে শাকিবের কাছে রেখে এসেছিলেন।

ছেলেকে শাকিবের কাছে রেখে আরের প্রসঙ্গে অপু বলেন, ‘এবার ছেলে তার বাবার কাছে আছে। আমারও ভীষণ ভালো লাগছে। এর আগে ছেলেকে একা রেখে যেতে হত।’

এদিকে খবর শাকিবও দ্বিতীয় বিয়ের কথা ভাবছেন। তারপর থেকেই রটছে এমন যেন না হয় শাকিব দ্বিতীয় বিয়েটাও প্রথম বউকেই করে ফেললেন।

‘লাল শাড়ি’ নামে একটি সিনেমার প্রযোজনা করছেন অপু। তিনি ওই ছবিতে অভিনয়ও করছেন। আর সেটা নিয়ে কথা বলার সময়েই আসলে ওঠে প্রপোজের প্রসঙ্গ। অপু বিশ্বাস বলেন, ‘লাল শাড়ি সব মেয়ের কাছেই স্পেশাল।

যেমন বিয়ের সময় সবাই লাল শাড়ি পড়ে, লাল শাড়ি পরে প্রপোজও করে। আমিও লাল শাড়ি পরে শাকিবকে প্রপোজ করেছিলাম। বেবি শাওয়ারের সময়ও মা আমাকে লাল শাড়ি পরিয়েছিলো।’

২০০৮ সালে গোপনে বিয়ে করেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতার একটি হাসপাতালে জন্ম হয় তাদের একমাত্র সন্তান আব্রাম খান জয়ের।

২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল ছেলেকে নিয়ে একটি টিভি চ্যানেলের লাইভ অনুষ্ঠানে এসে গোপন কথা ফাঁস করে দেন অপু।

তার পাঁচ মাস পর অর্থাৎ ২০১৭ সালের ২২ নভেম্বর নানা অভিযোগ তুলে অপুকে তালাকের নোটিশ পাঠান শাকিব। ২০১৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি আইনিভাবে পথ আলাদা হয় দুজনের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.