কষ্টে বুক ফেটে যাচ্ছে। চোখ ভরে উঠছে পানিতে। তবুও কিছুতেই কাঁদতে পারছেন না কমেডিয়ান ভারতী সিং। পেশা যে বড় দায়! কমেডিয়ান রাজু শ্রীবাস্তবের মৃ;ত্যুর খবরটা শুটিংয়ে এসেই জানতে পেরেছিলেন ভারতী।

যাকে দেখে কাজ শিখেছেন তিনি যে নেই, এখবর শুনে শোকস্তব্ধ ভারতী সিং।

ধাতস্থ হতেই সামলে নিতে হয়েছে নিজেকে। কমেডি শোর শুটিংয়ে এসেছেন তিনি। কী করেই বা কাঁদবেন। ভারতীর কথায়, “কষ্টে আছি, তবু কাউকে বলতে পারছি না, আমি কাঁদতে চাই”।

ভারতী আরও বলেন, “কিছু দিন আগেই তার স্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছিল, তিনি আমাকে জানান রাজুজি সুস্থ হয়ে যাবে। বলেছিল তার জন্য ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করতে। আমি তাও করেছিলাম। কিন্তু কী হল। মানুষটাই আর রইলেন না।”

আইসিইউতে ৪৩ দিন কাটানোর পর বুধবার দিল্লির এক বেসরকারি হাসপাতালে প্রয়াত হল রাজু শ্রীবাস্তব। বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর। ট্রেডমিল করার সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হন রাজু। মস্তিষ্ক সাড়া দিচ্ছিল না তাঁর। ছিলেন অচৈতন্য। ভেন্টিলেশনে কৃত্তিম উপায়ে শ্বাসপ্রশ্বাস চালু রাখার চেষ্টা করা হয়েছিল।

তিনি যে আশঙ্কাজনক সে কথা বারেবারেই জানাচ্ছিলেন চিকিৎসকেরা। রাজুর খবর নিতে তার স্ত্রীকে ফোন করেন খোদ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শুধু মোদিই নন কৌতুকশিল্পী কেমন আছে তা জানতে ফোন করেন দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথও।

অনুরাগীরাও একমনে করছিলেন প্রার্থনা। মাঝে চিকিৎসায় সাড়াও দিচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। চলে গেলেন রাজু। ‘

বিগবস’ থেকে শুরু করে ‘কপিল শর্মা’র শো– এ সবেই নিজের অবদান রেখেছেন রাজু। একাধিক বলিউড সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন রাজু শ্রীবাস্তব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.