নড়াইলে বো’মাসহ আটক ৩ হিন্দু জ’ঙ্গি, দেশে হিন্দু জ’ঙ্গিদের দৌরাত্ম বাড়ছে,

নড়াইল সদর উপজেলার চন্ডিবরপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে ৮টি বোমা ও বোমা তৈরির উপকরণসহ তিনজন হিন্দু জঙ্গিকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। সোমবার (১৫ জুলাই) বেলা ১০টার দিকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন চন্ডিবরপুর গ্রামের মন্টু সরকারের ছেলে কালু সরকার (৫৫), কালিপদ সাহার ছেলে বিশ্বজিত সাহা (৫১) ও দুলাল বিশ্বাসের ছেলে সাগর বিশ্বাস (২৮)। এছাড়া রবি বিশ্বাস নামে তাদের এক সহযোগী পালিয়ে যায়।

র‌্যাব-৬ খুলনার স্পেশাল কোম্পানি কমান্ডার মেজর শামীম সরকারের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়। তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার ভোর ৫টা থেকে নড়াইল সদরের চন্ডিবরপুর গ্রামের বিশ্বজিত সাহার বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ওই বাড়ি থেকে আটটি বোমা এবং বোমা তৈরির কাজে ব্যবহৃত ডিভাইস, গানপাউডার, সার্কিট, তার, ২০টি মোবাইল ফোন ও বিভিন্ন মোবাইল কোম্পানির ৫০টি সিমকার্ড উদ্ধার করা হয়।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিন যাবত এই চক্রটি বোমা তৈরি করে বিভিন্ন সন্ত্রাসী চক্রের কাছে বিক্রি করে আসছিল, এবং ধর্মীয় অনেক সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে আসছিলো যার দায় তারা কৌশলে মুসলমানদের উপর ফেলতো। এ ঘটনায় নড়াইল সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

এবার সেই রোহিঙ্গা তরুণী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার

কিছুদিন আগে জার্মান ভিত্তিক বার্তা সংস্থা ডয়চে ভেলেকে দেওয়া একটি ভিডিও সাক্ষাৎকার ভাইরাল হয়। ভিডিওতে দেখা যায় কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (সিবিআইউ) থেকে রহিমা আক্তার খুশি নামে এক শিক্ষার্থী মিয়ানমারের নাগরিক। ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর উক্ত শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রম সাময়িক স্থগিত করা হয়েছিল।

আলোচিত রোহিঙ্গা তরুণী রাহিমা আক্তার ওরফে রাহি খুশিকে এবার কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (সিবিআইইউ) থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. আবুল কাশেম।

ভিসি জানান, খুশির পরিচয় প্রকাশ হওয়ার পর তাকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। তার সনদসহ অন্যান্য সব তথ্যাদি যাচাই করতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী সাত দিনের মধ্যে কমিটি রিপোর্ট দেবে।

সিবিআইইউ ভিসি বলেন, ‘খুশি যে বাংলাদেশি নয়; সেটি সরকার প্রমাণ করে সিদ্ধান্ত দেবে। আমরা সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব’।

রহিমা আক্তার খুশি কক্সবাজার বায়তুশ শরফ জব্বারিয়া একাডেমি থেকে এসএসসি ও কক্সবাজার সরকারি মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করে। এসব সনদ এবং বাংলাদেশি জন্মসনদ দিয়ে ভর্তি হয়ে বর্তমানে তিনি কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী। কক্সবাজারের ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে এলএলবি অনার্স পড়ছেন।